মুজিব বর্ষ বিষয়ক অগ্রগতি প্রতিবেদন জানুয়ারি-জুলাই ২০২০

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ জন্মগ্রহণ করছিলেন, এ বছর ২০২০ এ তাঁর জন্মশতবার্ষিকী। সরকারের পক্ষ থেকে এবছরটিকে তাই মুজিব বর্ষ বলে ঘোষণা করা হয়েছে। ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন এবং এর সেক্টর ও প্রতিষ্ঠানগুলো বিপুল উৎসাহ-উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে এ উপলক্ষ্যে বছর ব্যাপী ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। মাঝখানে করোনা ভাইরাসের কারণে যে বৈশি^ক মহামারী পুরো বিশ^ পরিস্থিতির উপর ব্যপক প্রভাব ফেলে, তারই কারণে অনেক কার্যμমই বাঁধাগ্রস্ত হয়। এর মধ্যেও যতটুকু করা সম্ভব হয়েছে তার কিছু সংক্ষিপ্ত বর্ণনা ও ছবি নিচে প্রদত্ত হলো:

ব্যানার, ফেস্টুন ও ফ্লাইয়ার প্রদর্শণ:
মার্চ ২০২০ মাসের শুরু থেকেই ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের প্রধান কার্যালয়সহ সকল অফিসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ও মুজিব শতবর্ষের লোগো সম্বলিত ব্যানার ও ফেস্টুন প্রদর্শণ করা হয় এবং এ বছরের সকল ইভেন্টে মুজিব শতবর্ষের ফ্লাইয়ার প্রদর্শীত হয়ে আসছে।
ডিএফইডি’র ঢাকা, ময়মনসিংহ ও খুলনা জোনের ১৮টি এরিয়ার ১০৬টি ব্রাঞ্চ অফিসে মুজিববর্ষ সম্মলিত প্লেকার্ড/ব্যানার টানানো হয়।

ক্ষণগণনা:
১০ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এ অংশ নেয় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের কক্সবাজার অফিস।

বিশেষ আলোচনা সভা :
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় মিশনের বিভিনড়ব অফিস ও কর্মএলাকায়।

মিশনের ডিএফইডি ১০৬টি ব্রাঞ্চ অফিসের ৭,২৬৪টি দলে সদস্যদের উপস্থিতিতে সাপ্তাহিক সভায় বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শের উপর আলোচনা করা হয়। এতে ভবিষ্যত প্রজন্ম জাতির পিতার আদর্শ, সংস্কৃতি চর্চা, খেলাধুলা, সামাজিকতা, মানবতা, কর্মতৎপরতা, মহত্ব, দুরদর্শীতা ও বুদ্ধিদীপ্ত সম্পর্কে জানার সুযোগ সৃষ্টি হয়, যা তাদের ভবিষ্যত জীবনের সফলতার পাথেয় হিসাবে কাজ করবে। স্বাস্থ্য সেক্টর করোনা মহামারীকে কেন্দ্র করে এ পর্যন্ত “করোনা সংলাপ” শিরোনামে ২২টি অনলাইন ডিসকাশনের আয়োজন করেছে যার প্রতিটিতে বঙ্গবন্ধুর স্বপড়বকে বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

কেক কাটা:
ডিএফইডি ও স্থানীয় প্রশাসন যৌথভাবে কেক কাটা ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। শিক্ষা সেক্টরের ৫টি মাল্টিপারপাস সেন্টারে কেক কাটার মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

পুষ্পস্তবক অর্পণ:
মার্চ ২০২০ মাসে বিশ্বম্ভরপুর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ এরিয়া অফিসের কর্মীগণ দুই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের সাথে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ অর্পণ করেন।

বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা ক্যাম্প :
১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জন্মদিন উপলক্ষ্য স্বাস্থ্য সেক্টরের পক্ষ থেকে ৬টি প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে এবং সমন্বিত স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়। এতে ৬৫৮ জনকে হেলথ চেক আপ, ২টি সিজারিয়ান এবং ৩টি নরমাল ডেলিভারীও বিনামূল্যে করানো হয়।

UPHCSDP-II, DSCC PA-3 all 06 PHCC and CRHCC (Nagar Matri Sadan) স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রগুলিকে বর্ণাঢ্য আলোক সজ্জায় সজ্জীত করা হয় এবং সকল আউটডোর পেসেন্ট ও ডেলিভারী পেসেন্টকে বিনামূল্যে সেবা দেয়া হয়।

বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্পের আওতায় আরও ছিল :
১. ব্লাড প্রেসার মাপা
২. ব্লাড সুগার পরীক্ষা
৩. ওজন ও উচ্চতা পরিমাপ
৪. পুষ্টিসেবা
৫. BMI/Height-Weight Measurement
৬. গর্ভকালীন ও গর্ভত্তোর সেবা

চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা:
১৪১টি সিএলসি, ২টি ড্রপ-ইন-সেন্টার এবং আহ্্ছানিয়া মিশন শিশু নগরীতে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এতে মোট ৪,৭২৬ জন শিশু অংশগ্রহণ করেন।

দেওয়াল পত্রিকা :
মোহাম্মদপুর আরবান কমিউনিটি লার্ণিং সেন্টারে মাসিক দেওয়াল পত্রিকা তৈরী করে শিক্ষার্থীরা। ৭টি সিএলসির শিক্ষার্থীগণ এতে অংশ নেয়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ক্রিড়া প্রতিযোগিতা:
স্বাস্থ্য সেক্টরের আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে বিভিনড়ব গ্রোথ সেন্টার ও স্কুলে সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীগণ “আমাদের পরিবর্তন দরকার” শিরোনামে স্ট্রিট ড্রামা করে। কলাপাড়া, মিরজাগঞ্জ ও পটুয়াখালীর স্কুলগুলোতে ১৫০০ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। এই সকল ইভেন্টে মুজিব শতবর্ষের ফ্লাইয়ার প্রদর্শীত হয়েছিল। মার্চ ২০২০ মাসে শিক্ষা সেক্টরের আওতায়ও শিক্ষার্থীগণ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে। ১টি সিএলসি ও ২টি ড্রপ-ইন-সেন্টার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। AITVET এর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ মিলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ও ক্রিড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার তৈরী:
অওঞঠঊঞ-এর লাইব্রেরীতে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার তৈরী করা হয়েছে, সেখানে রয়েছে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ছবি দিয়ে তৈরী একটি শুশোভিত ব্যানার এবং বই, যা থেকে শিক্ষার্থীগণ জানতে পারছে মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও দেশের ইতিহাসকে।

খাবার বিতরণ :
এপ্রিল ২০২০ মাসে ১২০০ জন পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুদের মধ্যে দুপুরের খাবার বিতরণ করা হয়।

বৃক্ষরোপণ:
মুজীব শতবর্ষের স্মৃতি রক্ষার্থে মিশনের বিভিনড়ব অফিসে এ পর্যন্ত পাঁচ শতাধিক ফলজ, বনজ ও ওষধী বৃক্ষ রোপন করা হয়েছে। এছাড়া সদস্যদের উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে তাদের স্ব স্ব বাড়ির আঙিনায় বৃক্ষ রোপন করতে। বিশেষ করে উত্তরা ক্যান্সার হাসপাতালে, শেল্টার হোম ঠিকানায়, শিশুনগরীতে স্টাফ ও শিক্ষার্থীরা বৃক্ষ রোপন করে।

পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুদের মধ্যে ঈদের পোষাক বিতরণ:
জুলাই ২০২০ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর উপলক্ষে ঢাকা মোহাম্মদপুরের পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুদের মধ্যে ঈদের পোষাক বিতরণ (ছেলেদের জন্য একটি স্কুল ব্যাগ, পাঞ্জাবী, প্যান্ট, একজোড়া জুতা, একটি ক্যাপ এবং প্রতিটি শিশুর জন্য একটি মাস্ক এবং মেয়ে শিশুদের জন্য ছিল, একটি স্কুল ব্যাগ, একটি ফ্রক, একটি জুতা, একটি হিজাব এবং প্রত্যেকের জন্য একটি মাস্ক) করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে তুরস্কের মহামান্য রাষ্ট্রদূত জনাব মোস্তফা ওসমান তুরান উপস্থিত ছিলেন।